Header Ads

কোল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে শিশু পুড়িয়েছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী'

আন্তর্জাতিক শিশু অধিকার সংস্থা ‘সেভ দ্যা চিলড্রেন’ বলেছে, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সরকারি বাহিনীর হত্যা-নির্যাতনের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে নারী ও শিশুরা। কারণ তাদের ওপর অকল্পনীয় নির্যাতন চালানো হয়েছে। সংস্থাটির পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।
সেভ দ্যা চিলড্রেনের প্রধান হেলে থোরিং শ্মিড বলেছেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা নারী ও শিশুরা হত্যা-নির্যাতনের যে বর্ণনা দিয়েছে তা কল্পনা করা যায় না। একজন তরুণী বলেছেন, তার সামনেই মিয়ানমারের একজন সেনা একজন গর্ভবতী নারীর শরীরে পেট্রোল ঢেলে সেখানে আগুন ধরিয়ে দেয়। এর ফলে ওই নারী আগুনে পুড়ে মারা যায়। আরেকজন সেনা, মায়ের কোল থেকে এক শিশুকে ছিনিয়ে নিয়ে আগুনে ফেলে হত্যা করে।
সেভ দ্যা চিলড্রেনের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ৬০ শতাংশই শিশু। এদের অনেকেরই বাবা-মা দু’জনই নিহত হয়েছে।
গত ২৫ আগস্ট থেকে রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নতুন করে হামলা শুরু করে মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী। এর ফলে অন্তত ছয় হাজার মুসলমান নিহত ও হাজার হাজার মানুষ আহত হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে অন্তত সাত লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী মানবেতর জীবনযাপন করছে।
মিয়ানমার সরকার রাখাইনে সহিংসতা বন্ধের দাবি করলেও বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে, সেখানে মুসলমানদের ওপর হত্যা-নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে।
Powered by Blogger.