Header Ads

খালেদা জিয়া কবে ফিরবেন, জানেন না বিএনপি নেতারা!

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। আগামী ১৫/১৬ সেপ্টেম্বর বেগম জিয়া দেশে ফিরবেন বলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঈদের পর জানিয়েছিলেন। কিন্তু বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে, এ মাসে বেগম জিয়া দেশে ফিরছেন না। বেগম জিয়ার সঙ্গে লন্ডনে গিয়েছিলেন আমীর খসরু মাহামুদ চৌধুরী।
রোববার তিনি জানিয়েছেন, ‘বেগম জিয়ার দেশে ফেরার দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি।’ লন্ডনে যোগাযোগ করে এমন বিএনপির একাধিক নেতা বলেছেন, ‘এখনই তাঁর দেশে ফেরার সম্ভাবনা খুবই কম’
বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, মূলত কয়েকটি কারণে বেগম জিয়ার ঢাকা ফেরা বিলম্বিত হচ্ছে। তারমধ্যে রয়েছে, বেগম জিয়া দেশে যে সহায়ক সরকারের রূপরেখা ঘোষণা করবেন, তা এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি। তারেক জিয়া এই রূপরেখা চূড়ান্ত করার কাজটি করছেন। এই রূপরেখার মূল বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে যে ‘শেখ হাসিনার অধীনে কোনো নির্বাচন নয়’। রূপরেখার নির্বাচনকালীন সরকার কেমন হবে সেটাও চূড়ান্ত করা হচ্ছে।
বেগম জিয়ার বিলম্বের আরো একটি কারণ হলো, আদালতের মামলা। বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে দুটি মামলার শুনানি চূড়ান্ত পর্যায়ে। তিনি বিদেশে থাকার কারণে মামলা গুলোর কার্যক্রম বন্ধ আছে। বেগম জিয়া যদি একটু বিলম্ব করেন তাহলে তাঁর মামলাগুলো ছুটি ফাঁদে পড়বে। ডিসেম্বরের ১ তারিখ থেকে দেশের অধ:স্তন আদালতে দীর্ঘ এক মাসের ছুটিতে যাচ্ছে। কাজেই ছুটির আগে মামলা ঝুলিয়ে রাখলে, বেগম জিয়ার আয়ুস্কাল বাড়বে। জানুয়ারি মাস থেকে বিএনপি সরকার বিরোধী আন্দোলন করার প্রত্যাশা করছে। সেটি করতে করতে পারলে, বেগম জিয়া মামলা দুটির বিচার এড়ানোর সুযোগ পাবেন। এখন নির্বাচনী আইন অনুযায়ী অধ:স্তন আদালতে দণ্ডিত হলেই, একজন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের যোগ্যতা হারাবে।
এই সব পরিপ্রেক্ষিতে, বেগম জিয়া কবে দেশে ফিরবেন তা নিশ্চিত নয়। দলের সিনিয়র নেতারাও এ সম্পর্কে অন্ধকারে। বিএনপির একাধিক নেতা বলেছেন, ‘বেগম জিয়া লন্ডনে কী করছেন, যে সম্পর্কে আমরা কিছু জানি না। এমনকি তাঁর দেশে ফেরার বিষয়টিও একান্তই তাঁর উপর।’
purboposhchimbd
Powered by Blogger.