Header Ads

নাফ নদীর লাশের ওপর দিয়ে মিয়ানমারে গিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী : রিজভী

নাফ নদীর রক্তাক্ত লাশের ওপর দিয়ে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম মিয়ানমারে খাদ্য আনতে গিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। রোহিঙ্গা সঙ্কটের মধ্যে মিয়ানমারের কাছ থেকে চাল কিনতে যাওয়ার সমালোচনা করে তিন বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ এই অমানবিকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার। অথচ সেই দেশের কাছে খাদ্য আনতে গিয়েছেন আমাদের খাদ্যমন্ত্রী, সঙ্গে নিয়েছেন স্ত্রীকে। কত বড় নতজানু এই সরকার, প্রতিবাদ করতে পারে না, তাদের কাছে অনুনয়-বিনয় করছেন।
শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘মিয়ানমার সরকার কর্তৃক রোহিঙ্গাদের হত্যা, বর্বর নির্যাতন বন্ধ এবং বাংলাদেশের তাদের খাদ্য, চিকিৎসা ও আশ্রয়ের দাবি’ উপলক্ষে আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।বিএনপি আয়োজিত এ কর্মসূচিতে সরকারকে উদ্দেশ্য করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, কেন মিয়ানমারে যাচ্ছেন? কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম ও থাইল্যান্ডে চাল আছে। সেখানে না গিয়ে কেন মিয়ানমার যাচ্ছেন।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান বলেন, আমরা মানবতার হাত রোহিঙ্গাদের প্রতি বাড়িয়ে দেব। বাংলাদেশের মানুষ এজন্য প্রস্তুত আছে। সরকার যদি এই কঠিন সত্যকে স্বীকার না করে তাহলে তারা দায়িত্ব ছেড়ে পদত্যাগ করে এই দেশ থেকে চলে যাক।
বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, মিয়ানমারের এই ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ হচ্ছে বাংলাদেশ। নিরাপত্তার দিক থেকে এবং মানবেতর যে অবস্থা তার শিকার হয়েছে বাংলাদেশ। অথচ আমরা নিরাপত্তা পরিষদে এই বিষয়টি তুলতে পারি নাই। এই ব্যাপারটিকে সেখানে জাতিসংঘের মহাসচিবকে নিয়ে যেতে হয়েছে। এর চেয়ে লজ্জ্বার বিষয় আর কিছু হতে পারে না।
রোহিঙ্গাদের ইস্যূ আলাপ- আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে হবে মন্তব্য করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকার কূটনৈতিকভাবে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে।
উৎসঃ   আমাদের সময়
Powered by Blogger.