Header Ads

রোহিঙ্গা ইস্যুটি ভারতের কাশ্মির ইস্যুর মতো : সু চি

রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা মুসলিম ইস্যুটিকে ভারতের কাশ্মির ইস্যুর তুলনা করে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর আঙ সান সু চি বৃহস্পতিবার বলেছেন, রোহিঙ্গা ও কাশ্মির ইস্যুর মধ্যে মিল রয়েছে।
সু চি বলেন, ভারত কাশ্মিরে যে সমস্যায় পড়েছে, আমরা একই ধরনের অবস্থায় পড়েছি।তিনি বলেন, আমাদেরকে নিরীহ নাগরিকদের যত্ন নিতে হবে। তবে আমাদের প্রয়োজনীয় সম্পদ নেই। অবশ্য আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করব এবং প্রতিটি নাগরিক যাতে আইনের আওতায় সুরক্ষিত থাকে তা নিশ্চিত করব।
নিজের সরকারের কঠিন অবস্থায় থাকা নিয়ে সু চি বলেন, সন্ত্রাসী ও নিরীহ লোকজনের মধ্যে কিভাবে পার্থক্য করা যায়, তা নিয়ে আমাদের চিন্তা করতে হবে। এ ব্যাপারে ভারত ভালো অবস্থায় আছে। ভারতে বিপুলসংখ্যক মুসলিম আছে। কাশ্মিরের মতো স্থানে সন্ত্রাস মোকাবিলায় নিরীহ নাগরিক আর সন্ত্রাসীদের মধ্যে পার্থক্য করা কঠিন কাজ।
সু চি আরো বলেন, রোহিঙ্গা মুসলিম ইস্যুটি অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ। এর সূচনা প্রাক-উপনিবেশ আমলের। ফলে এর নিরসনে সময় লাগবে।
মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর বলেন, সরকার এই সমস্যাটি উত্তরণে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা সাবেক জাতিসঙ্ঘ মহাসচিব কফি আনান কমিশনের দেওয়া সুপারিশমালা বাস্তবায়ন করছি। রাখাইন রাজ্যে যত দ্রুত সম্ভব সম্প্রীতি ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।
তিনি বলেন, কফি আনান কমিশন রাখাইন রাজ্যে বৌদ্ধ ও মুসলিমদের মধ্যে ভয়াবহ সহিংসতা বন্ধে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার সুপারিশ করেছে।
এর আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাখাইন রাজ্যে চরমপন্থী সহিংসতা নিয়ে মিয়ানমারের উদ্বেগের সাথে একমত ভারত। তিনি আশা প্রকাশ করেন, সংশ্লিষ্ট সবাই একটি সমাধান পাবে, যাতে দেশটিতে ঐক্য ও ভৌগোলিক অখ-তা বজায় থাকে।
সু চি সন্ত্রাসী হুমকির ব্যাপারে দৃঢ় অবস্থান ব্যক্ত করার জন্য ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি মোদিকে আশ্বাস দেন, তার দেশে সন্ত্রাসকে শেকড় গাড়তে দেয়া হবে না।
উৎসঃ   সাউথ এশিয়ান মনিটর
Powered by Blogger.