Header Ads

পাকিস্তানের ধমকে ভয় পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, হঠাৎ বিপুল সাহায্য

সন্ত্রাসীদের স্বর্গরাজ্য, এর মূল্য চুকাতে হবে পাকিস্তানকে। গত সপ্তাহে এই মন্তব্য করে ইসলামাবাদের কড়া সমালোচনা করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এমনকি তিনি একথাও বলেন, পাকিস্তান যদি সন্ত্রাসে মদত দেয়া থেকে পিছিয়ে না আসে, তাহলে আন্তর্জাতিক মহল থেকে এখন যে সাহায্য পাচ্ছে ইসলামাবাদ, হয়তো সেটাও অনিশ্চিত হয়ে যাবে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, নতুন মার্কিন নীতিই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। পাকিস্তান জোরালো প্রতিবাদ করেছিল ওই বক্তব্য। তার জেরে সাহায্য তো বন্ধই হয়নি, নতুন করে সাহায্য ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।ওই সময় ট্রাম্প বলেছিলেন, পাকিস্তানকে বিলিয়ন ডলার দিয়ে সাহায্য করা হচ্ছে। অথচ সেই টাকাই পাকিস্তান সন্ত্রাসকে মদত দেয়ায় ব্যবহার করছে, মন্তব্য করেন ট্রাম্প। সেই সুরেই নিন্দা করেছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন থেকে শুরু করে একাধিক মার্কিন কর্মকর্তা।
পাকিস্তান এতে দমে না গিয়ে কড়া অবস্থান নেয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আক্রমণের প্রতিবাদে আমেরিকার সঙ্গে সবধরনের দ্বিপক্ষীয় আলোচনা, সফর সবকিছু আপাতত ছিন্ন করে ইসলামাবাদ। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে আরো বলা হয়েছে, আগামী মাসে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী শাহিদ আব্বাসির মার্কিন সফরের আগে, পাকিস্তান ওয়াশিংটনের সঙ্গে কোনোরকমের প্রকাশ্য আলোচনায় বসবে না।পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা মহম্মদ আসিফ জানিয়ে দিয়েছেন, সম্প্রতি তারা এক উচ্চপদস্থ মার্কিন কর্মকর্তার পাকিস্তান সফর পিছিয়ে দিয়েছেন, কারণ এখন পরিস্থিতি সেই সফরের অনুকূল নয়।
বিশেষজ্ঞমহলের ধারণা, বাস্তবে ট্রাম্পের সমালোচনার প্রতিবাদেই পাকিস্তানের এই পদক্ষেপ। দীর্ঘদিনের মিত্রশক্তি পাকিস্তান একেবারে উলটো পথে হাঁটা শুরু করায় খানিকটা চাপে পড়ে যায় হোয়াইট হাউজ। তড়িঘড়ি করে ট্রাম্প প্রশাসন ফের জানিয়ে দিল, শর্ত সাপেক্ষে ২৫ কোটি ৫০ লক্ষ মার্কিন ডলার সামরিক সহায়তা দিতে তারা প্রস্তুত। তবে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে পাকিস্তানকে। যদিও শীর্ষ সেনেটর ল্যারি প্রেসলার সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের আতুঁড়ঘর এটা আমেরিকাকে ঘোষণা করতেই হবে। একইসঙ্গে তিনি ভারতের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে ট্রাম্পের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।
বেনজির হত্যায় পলাতক ঘোষিত মুশাররফ
বেনজির ভুট্টো হত্যা মামলায় পারভেজ মুশাররফকে পলাতক অপরাধী ঘোষণা করল পাকিস্তানের বিশেষ সন্ত্রাস দমন আদালত। ৭৪ বছর বয়সি সাবেক পাকিস্তান প্রেসিডেন্ট চিকিত্সার জন্য গত বছর দেশত্যাগের অনুমতি পান। সেই থেকে তিনি দুবাইয়ে রয়েছেন।২০০৭ সালের ২৭ ডিসেম্বর ভোটপ্রচারে রাওয়ালপিন্ডির লিয়াকত বাগের সমাবেশে ভাষণ দিয়ে বেরিয়ে আসার সময় গুলি, বিস্ফোরণে মাত্র ৫৭ বছর বয়সে নিহত হন দুবারের পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী বেনজির।
প্রায় ১০ বছর বাদে বৃহস্পতিবার বেনজির হত্যায় দুজন শীর্ষ পুলিশকর্তার ১৭ বছরের কারাবাসের নির্দেশও দিয়েছে সন্ত্রাস দমন আদালত। এরা হলেন রাওয়ালপিন্ডির প্রাক্তন সিপিও সৌদ আজিজ ও রাওয়াল টাউনের প্রাক্তন এসপি খুররম শাহজাদ। এদিন সন্ত্রাস দমন আদালতের বিচারক আসগর খানের রায় ঘোষণার সময় কোর্টরুমে হাজির ছিলেন জামিনে মু্ক্ত ওই দুজন। ৫ লক্ষ টাকা করে জরিমানাও হয়েছে তাদের।
এদিন সাবেক পাক সামরিক শাসকের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। তবে প্রমাণাভাবে আরও ৫ অভিযুক্ত রেহাই পেয়েছে মামলা থেকে। সকলেই তেহরিক-ই-তালিবান সদস্য। এরা বরাবর পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) নেত্রীর হত্যায় জড়িত নয় বলে দাবি করেছে।বেনজির নিহত হওয়ার পরপরই মামলা হয়। তারপর নানা উত্থান পতন হয়েছে তাতে। আট বিচারক এই দীর্ঘ সময়ে মামলার শুনানি করেছেন, তাঁদের ভিন্ন করানো বদল করা হয়েছে। গতকালই শেষ হয়েছে বিচার প্রক্রিয়া।২০০৮-এর জানুয়ারি ৫ সন্দেহভাজনের বিচার শুরু হয়, তবে মুশারফকে অভিযুক্ত করা হয় ২০০৯-এ, ফেডেরাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির নতুন তদন্তের পর।
এদিনের আদালতের নির্দেশের পর বেনজির কন্যা আসিফা ভুট্টো জারদারির ট্যুইট, ১০ বছর বাদ আজও ন্যয়বিচারের অপেক্ষায়। প্ররোচনাদাতাদের সাজা হল, কিন্তু মায়ের হত্যার আসল দোষীরা আজও ঘুরে বেড়াচ্ছে। প্রেসিডেন্ট মুশারফ অপরাধের সাজা না পাওয়া পর্যন্ত ন্যয়বিচার অধরাই থাকবে। পিপিপি নেত্রী শেইলা রাজাও রায়ে হতাশ। তিনি বলেছেন, তদন্তে ও সরকারের দায়ের করা এফআইআরে আপত্তি ছিল আমাদের।
শুরুতে টিটিপি প্রধান বাইতুল্লা মেহসুদকে বেনজির হত্যার জন্য দায়ী করা হয়। মুশাররফ সরকার প্রমাণ হিসাবে মেহসুদের সঙ্গে এক অপারেটরের টেপবন্দি কথোপকথন প্রকাশ করে। তাতে শোনা যায়, হত্যার জন্য তাকে বাহবা দিচ্ছে মেহসুদ।কিন্তু এফআইএ-র প্রধান কৌঁসুলি মহম্মদ আজহার চৌধুরি ওই টেলিফানে হওয়া কথাবার্তা গ্রহণযোগ্য প্রমাণ হিসাবে মানতে অস্বীকার করেন। মুশাররফই তদন্তে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে নিজেকে বাঁচানোর জন্য এই ‘সাজানো গল্প’ ছেড়েছেন বলে জানান তিনি।
dailynayadiganta
Powered by Blogger.