Header Ads

রোহিঙ্গা নির্যাতন : হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভ ইন্দোনেশিয়ায়

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা নিপীড়নের অবসান দাবিতে ইন্দোনেশিয়ায় মিয়ানমারের দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ করেছে কয়েক হাজার মুসলমান। বুধবার রাজধানী জাকার্তায় মিয়ানমারের দূতাবাসের সামনে ওই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।
সাদা ইসলামিক পোশাক ও মাথায় ক্যাপ পরে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী রাজধানী জাকার্তা সড়কে বিক্ষোভ করে। পরে তারা জাকার্তায় নিযুক্ত মিয়ানমারের দূতাবাসের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখান।
রাখাইনে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের অবৈধ অভিবাসী হিসেবে মনে করে মিয়ানমার। দেশটির সরকার রোহিঙ্গা মুসলিমদের সেদেশের নাগরিকত্ব দেয়নি। গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে পুলিশের ৩০টি তল্লাশি চৌকিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলায় ১২ পুলিশ নিহতের পর ব্যাপক অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।
সেনাবাহিনীর রক্তাক্ত অভিযানে এখন পর্যন্ত চার শতাধিক রোহিঙ্গার প্রাণহানি ঘটেছে। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর বলছে, রাখাইনে সেনা অভিযান শুরুর পর বাংলাদেশে দেড় লাখ রোহিঙ্গা পালিয়েছে।
এছাড়া দুই দেশের শূন্য রেখায় এখনো হাজার হাজার রোহিঙ্গা আটকা আছেন। অনেকেই আশ্রয় শিবিরে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।
ইন্দোনেশিয়ার বোগর শহর থেকে স্থানীয় স্কুল শিক্ষক টিটা ফাতমাওয়াতি বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘আমি মনে করি এটা শুধু ধর্মীয় ইস্যু নয়, এটা একটি মানবিক ইস্যু। সেখানে যা ঘটছে তা খুবই নিষ্ঠুর।’
জাকার্তা পুলিশের মুখপাত্র এএফপিকে বলেন, মিয়ানমার দূতাবাসের সুরক্ষায় প্রায় ৬ হাজার সশস্ত্র পুলিশ ও সামরিক কর্মকর্তা মোতায়েন করা হয়েছিল। কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে মুড়িয়ে দেয়া হয় দূতাবাস। জাকার্তায় মিয়ানমারের দূতাবাসে গত রোববার গভীর রাতে ককটেল নিক্ষেপ করা হয়।
সূত্র : ডেইলি সাবাহ।
Powered by Blogger.