Header Ads

অভিভাবকের অভাব কিছুটা হলেও তুরস্ক পুরন করেছে, মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া-যুগ্ন মহাসচিব জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ

মজলুম রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিনে দেখার জন্য সুদুর তুরস্ক থেকে ছুটে এসেছেন এরদোগানের পত্নী এমিনি এরদোগান। তাঁকে ধন্যবাদ জানানোর ভাষা আমার জানা নেই।
মুসলিম বিশ্ব আজ অভিভাবক শুন্য। আরাকানী মুসলমানদের দুর্দিনে মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধানদের যে ভূমিকা রাখা দরকার ছিল তা পরিলক্ষিত হচ্ছে না। শাসকরা ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার জন্য মুসলিম দুশমনদের সেবাদাসে পরিনত। ক্ষমতাধর তাগুতের পদলেহনই যেন তাদের জীবনের ব্রত হয়ে দাঁড়িয়েছে। 
আরাকানী মুসলমানকে জীবন্ত দগদ্ধ করা হচ্ছে। হিংস্র পশুর ন্যায় কুপিয়ে হত্যা করছে। ধর্শন করে নারী জাতির সতিত্ব হরন কর চলছে। মাসুম শিশুদের হত্যা করা হচ্ছে। এসব বর্বচিত ঘটনায় কারো অন্তরাত্মায় বিন্দুমাত্র কম্পন সৃস্টি হচ্ছে না।
সংকটাপন্ন এ অবস্থায় তুরুস্ক কিছুটা হলেও অভিভাবকের ভূমিকা পালন করছে। এরদোগান সুচিকে ফোন করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বিভিন্ন মুসলিম রাষ্ট্র প্রধানদের নিকট ফোন করে করনীয় সম্পর্কে সচেতন করেছেন। এরদোগান পত্নী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে নিজেও কেঁদেছেন, অন্যদেরকেও কাঁদিয়েছেন। ছিঁড়া-ফাটা কাপর পরিহিত মা বোনদে জডিয়ে ধরে সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। অসহায়দের নিজ হাতে আহার করিয়েছেন। ত্রান বিতরণ করেছেন।
তাই বলি অভিভাবকের অভাব কিছুটা হলেও তুরস্ক পুরন করেছে।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ন মহাসচিব, মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া তাঁর ফেসবুক আইডিতে এমন মন্তব্য করেন ।  
Powered by Blogger.