Header Ads

রাখাইনে ৮৬ হিন্দু হত্যা’নড়েচড়ে বসেছে ভারত সহ হিন্দুরা

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চলমান সহিংসতায় ৮৬ জন হিন্দুকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশ গুপ্ত। তিনি আরও জানান, একইসঙ্গে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে হিন্দু রোহিঙ্গাদের বাড়িঘর এবং লুট করা হয়েছে তাদের সব সম্পদ। আর এ কারণে রাখাইন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে প্রায় সাড়ে ৫শ’ হিন্দু রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশু।
রবিবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে কক্সবাজারের কুতুপালংয়ে আশ্রয় নেওয়া হিন্দু ধর্মাবলম্বী রোহিঙ্গাদের দেখতে যান রানা দাশ গুপ্ত। এসময় উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এসব তথ্য জানান।রানা দাশ বলেন, ‘রাখাইনের মংডু চিকন ছড়ি নামক গ্রামে ৪৮৯ জন হিন্দু নারী, পুরুষ ও শিশু বসবাস করে আসছিল। কিন্তু হঠাৎ করে সেখানে সহিংসতা শুরু হয়। এসময় মুসলিমদের পাশাপাশি মংডু চিকন গ্রামের হিন্দুদের ওপরও আক্রমণ চালায় মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা। এসব সন্ত্রাসীরা এ পর্যন্ত ৮৬ জন হিন্দুকে হত্যা করেছে। একইসঙ্গে তারা হিন্দু রোহিঙ্গাদের সব সম্বল কেড়ে নিয়ে বাড়িঘরে আগুন দিয়েছে।’কুতুপালংয়ে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলছেন রানা দাশ গুপ্ত (ছবি- প্রতিনিধি)
এসময় রানা দাশ গুপ্ত ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি পরিমল কান্তি চৌধুরী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক তাপস হৌড়, কক্সবাজারের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক প্রিয়তোষ শর্মা চন্দন ও স্থানীয় ইউপি সদস্য বখতিয়ার আহমদসহ স্থানীয় নেতারা।
এসময় কুতুপালংয়ে আশ্রয় নেওয়া হিন্দু রোহিঙ্গাদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তাদের খোঁজখবর নেন রানা দাশ গুপ্ত। পরে তিনি হিন্দু রোহিঙ্গাদের মাঝে কাপড় ও খাদ্য বিতরণ করেন।
উৎসঃ   বাংলা ট্রিবিউন
Powered by Blogger.