Header Ads

মোবাইল ফোন অপারেটরদের ‘ভাঁওতাবাজি’: ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ

মোবাইল ফোন অপারেটরদের প্যাকেজে গ্রাহকরা ‘শুভঙ্করের ফাঁকিতে’ পড়ছে কি না এবং তাদের অভিযোগের বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে সে বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ।
মঙ্গলবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উপসচিব মাজেদা ইয়াসমীন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বিটিআরসি চেয়ারম্যানকে পাঠানো হয়।
এতে মোবাইল ফোন অপারেটরদের বিভিন্ন প্যাকেজের শর্ত যাচাই করে প্রতিবেদন দিতে আগামী ৩১ অগাস্ট সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশে মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি গ্রাহক রয়েছে গ্রামীণফোনের। বিটিআরসির হিসাবে তাদের গ্রাহক সংখ্যা ৫ কোটি ৯৩ লাখ, একীভূত হওয়ার পর রবি-এয়ারটেল মিলে ৩ কোটি ৫০ লাখ, বাংলালিংকের ৩ কোটি ১৩ লাখ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত অপারেটর টেলিটকের গ্রাহক সংখ্যা ৩৭ লাখ।
১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশে ইন্টারনেট গ্রাহক এখন প্রায় অর্ধেক, যাদের অধিকাংশই মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি শেষের তথ্য হিসেবে বর্তমানে দেশে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ৬ কোটি ৭২ লাখ ৪৫ হাজার।
চিঠিতে বলা হয়, মোবাইল ফোন অপারেটররা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আকর্ষণীয় প্যাকেজ অফার দিয়ে থাকে। এসব প্যাকেজ নিয়ে ভোক্তারা নানা অভিযোগ উত্থাপন করেন। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ এবং অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা বাঞ্ছনীয়।
মোবাইল অপারেটরদের বিভিন্ন প্যাকেজ মূল্যায়ন করে বিভিন্ন অফারে নির্ধারিত মূল্য যৌক্তিকভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে কি না, ভোক্তা কোনোভাবে প্রতারিত হচ্ছে কি না বা অফারে কোনো ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’ রয়েছে কি না তা জানাতে বলা হয়েছে বিটিআরসিকে।
এছাড়া ভোক্তারা অভিযোগ করে থাকলে তার সমাধান হয়েছে কি না, না হয়ে থাকলে বিটিআরসি কী ব্যবস্থা নিয়েছে তাও জানাতে হবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগকে।
গত বছর নভেম্বরে মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র অভিযোগ করেন গ্রাহকরা।
গত বছর নভেম্বরে মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র অভিযোগ করেন গ্রাহকরা।
দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা বাড়লেও গ্রাহকরা প্রায়ই উচ্চমূল্যের পাশাপাশি ইন্টারনেট ধীরগতি, নেটওয়ার্ক সমস্যা, সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া ও ব্যবহারের চেয়ে বেশি টাকা কেটে নেয়া ইত্যাদি বিষয়ে অভিযোগ করে আসছেন।
গ্রাহকদের কথা বিবেচনা করে গত নভেম্বরে গণশুনানির আয়োজন করে বিটিআরসি।
মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে গ্রাহকরা নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র বিষয়গুলো তুলে ধরেন।
Powered by Blogger.