Header Ads

প্রধান বিচারপতির কাছে এবার সংসদ ভেঙ্গে দেবার রায় চায় বি এন পি

বিচারক অপসারণ ক্ষমতা সংসদে ফিরিয়ে এনে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার পর প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার কাছে আরও একটি রায় চেয়েছেন বিএনপি নেতা হাফিজউদ্দিন আহমেদ। তার প্রত্যাশা বর্তমান সংসদকে যেন অবৈধ ঘোষণা করে এটি ভেঙে দেয়ার আদেশ দেবেন প্রধান বিচারপতি।
বিএনপি নেতা বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে প্রধান বিচারপতি জনগণের একটি উপকার করেছেন। বর্তমান অবৈধ সংসদ ভেঙে দেয়া উচিত, এমন কোনও রায় দিয়ে তিনি আরও একটি উপকার করতে পারেন।’
বিএনপি-জামায়াত জোটের শরিক কল্যাণ পার্টি আয়োজিত ‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিল ও গণতান্ত্রিক যাত্রা’ শীর্ষক এক আলোচনায় বক্তব্য রাখছিলেন হাফিজ।
গত ৩ জুলাই সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে প্রধান বিচারপতিসহ আপিল বিভাগের সাত বিচারপতি। সরকার এই রায়ের কঠোর সমালোচনা করলেও বিএনপি এই রায়কে জনগণের মনের কথা বলে এর প্রশংসা করছে।
বিচার বিভাগ ও প্রধান বিচারপতিকে নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাদের মন্তব্যেরও কড়া সমালোচনা করেন হাফিজ। তিনি বলেন, ‘এই সরকার বিচারপতি অপসারণের ভার সংসদের হাতে নেয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে।’
আগামী জাতীয় নির্বাচনেও সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানান বিএনপি নেতা। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কোনও রাজনৈতিক দলের নয়। অতীতে এ দেশের প্রতিটি সংসদ নির্বাচনেই সেনাবাহিনী মোতায়েন ছিল। শুধু মাত্র ছিল না ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির তথাকথিত অবৈধ নির্বাচনে।’
হাফিজ বলেন, ‘নির্বাচনে সেনাবাহিনী না থাকলে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো আবারও দুর্বৃত্তরা লাঠি, রামদা হাতে ভোটকেন্দ্রে সাধারণ মানুষের উপর হামলা করবে। তাই আগামী নির্বাচনের দুই মাস পূর্বে দেশে সেনা মোতায়েন করতে হবে।’
নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করে বিএনপি নেতা বলেন, ‘দেশে এখন একটি নির্বাচন কমিশন আছে যাকে অত্যন্ত চাতুরতার সাথে ষড়যন্ত্র করে গঠন করা হয়েছে। এখন তারা যে বক্তব্য দিচ্ছে তার মাধ্যমে তাদের আসল চরিত্র ফুটে উঠছে।’
কল্যাণ পার্টির সভাপতি সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিমের সভাপতিত্বে সভায় নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব উন নবী খান সোহেল, কল্যাণ পার্টির মহাসচিব এম এম আমিনুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
ঢাকাটাইমস
Powered by Blogger.