Header Ads

সরকারকে চরম মূল্য দিতে হবে: মওদুদ

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় সরকারকে একদিন চরম মূল্য দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। প্রবীণ এই রাজনীতিবিদ বলেছেন, ‘সরকার ও সরকারি দল উচ্চ আদালত কর্তৃক একটি দেয়া একটি রায়কে চ্যালেঞ্জ করে বসেছে। তাদের এ অবস্থানে সমগ্র জাতি স্তম্ভিত। আর এ জন্য একদিন না একদিন সরকারকে চরম মূল্য দিতে হবে। রায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান প্রমাণ করে ক্ষমতাসীনরা সত্যিকার অর্থেই বিচারবিভাগের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করতো না।’
সোমবার (২১ আগস্ট) বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় এ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর বিএনপি (দক্ষিণ)।মওদুদ বলেন, ‘আমরা যারা বিরোধীদল তারা দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করে আসছি যে, আমরা নিম্ন আদালত থেকে ন্যায় বিচার পাচ্ছি না। কারণ নি¤œ আদালত সরকার নিয়ন্ত্রণে। সেই অর্থে আমরা দেশের কোনও আদালত থেকেই যখন ন্যায়বিচার পাচ্ছি না। ঠিক তখন সুপ্রিম কোর্ট ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় দিয়ে কিছুটা হলেও জনমনে আশার আলো দেখাতে সক্ষম হয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘সরকার ও সরকারি দলের মূল উদ্দেশ্য ভয়-ভীতি ও শঙ্কা সৃষ্টি করে বিচারবিভাগকে নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রাখা। আর তাই সরকার প্রধান থেকে শুরু করে সরকারি দলের মন্ত্রিপরিষদ এই রায়ের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে উঠে পড়ে লেগেছে।’
তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে সরকার ও সরকারি দলের নেতাদের সুর কিছুটা নরম হয়েছে। তাই দলটির দায়িত্বশীল একজন নেতাকে সম্প্রতি বলতে দেখেছি, এই রায় নিয়ে ভেবে চিন্তে জেনে শুনে কথা বলবেন। প্রশ্ন জাগে তাহলে কী তারা (ক্ষমতাসীনরা) এতো দিন ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় না পড়েই কথা বলেছেন ?’
সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হক সম্পর্কে বিশিষ্ট এই আইনজীবী বলেন, ‘উনি একজন নির্লজ্জ ও অসৎ ব্যক্তি। তিনি প্রধান বিচারপতি ছিলেন ভাবতে লজ্জা লাগে। কারণ এই ব্যক্তিটি দেশের অনেক উজ্জ্বল ভবিষ্যত ধূলিসাৎ করে দিয়েছে।’
বন্যা মোকাবিলায় সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ- অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘বন্যাদুর্গত এলাকায় লক্ষ লক্ষ মানুষ অনাহারে, এক প্রকার পানিবন্দি অবস্থায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। কাজেই প্রধানমন্ত্রী (শেখ হাসিনা) ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ওবায়দুল কাদের) একদিনের জন্য ত্রাণ বিতরণে গেছেন যা মুখ দেখানো।’ এ সময় তিনি প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যার পাশাপাশি মানব সৃষ্ট রাজনৈতিক দুযোর্গ থেকে রেহাই পেতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।
ঢাকা মহানগর বিএনপি (দক্ষিণ) সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুস সালাম, আব্দুস সালাম আজাদ, মীর সরাফত আলী সপু ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান মিন্টু প্রমুখ। 
ব্রেকিংনিউজ
Powered by Blogger.