Header Ads

বন্যা কবলিত মানুষের পাশে দাঁড়ান :জমিয়ত মহাসচিব, আল্লামা নূর হুসাইন কাসেমী

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হুসাইন কাসেমী বলেন “প্রবল বর্ষণ আর ভারত থেকে নেমে আসা ঢলে যমুনা, তিস্তা, সুরমা, কুশিয়ারাসহ বিভিন্ন নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বর্তমানে দেশের একটি বৃহৎ অঞ্চল বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। পানিবন্দী মানুষগুলো চরম দুর্ভোগের মধ্যে জীবন যাপন করছে। সরকারী বেসরকারী পর্যাপ্ত যে সব ত্রাণ তৎপরতা চালানো হচ্ছে তা প্রয়োজনের তুলনায় একবারে অপ্রতুল। সুতরাং সরকার ও বিত্তবানদেরকে বানভাসী মানুষের পাশে দাঁড়াতে ব্যাপক ত্রাণ তৎপরতা পরিচালনা করা প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে প্রবাসী বাংলাদেশীদের এগিয়ে আসতে হব। গতকাল ইউ,কে জমিয়ত সভাপতি মাওলানা শোয়াইব আহমদ বারিধারায় আল্লামা কাসেমীর সাথে সাক্ষাত করতে আসলে জমিয়ত মহাসচিব এসব কথাগুলো বলেন।
এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জমিয়তের সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসূফী, সাংগঠনিক সম্পাদক আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন প্রমুখ। তিনি জমিয়তের সকল নেতা কর্মীসহ দেশবাসীকে বন্যাকবলিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আহবান জানান ।
আল্লামা কাসেমী বলেন, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের পূর্বপ্রস্তুতি চরম উপেক্ষিত। উত্তর- পূর্ব ভারতে অতি বর্ষণ জনিত উজানের ঢল-বানের চাপ ভাটিতে বাংলাদেশের দিকে ভয়াবহ মাত্রায় গড়াবে, তা পরিস্থিতি দৃষ্টে একপ্রকার নিশ্চিত থাকা সত্ত্বেও দেশে বন্যা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সর্তকতা ও প্রস্তুতির অভাব অত্যন্ত প্রকট ভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে।
আল্লামা কাসেমী আরো বলেন, সরকারকে এব্যাপারে আরো সতর্ক ও যত্নবান হতে হবে। অন্যথায় এর প্রভাব ভয়াবহ রূপ ধারণ করবে। এবং দেশের অর্থনীতিতে মারাত্মক বিরূপ প্রভাব পড়বে। একদিকে বন্যাকবলিত সারাদেশ, অপরদিকে দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধগতি জনজীবনে অস্থিরতা সৃষ্টিকরেছে। সুতরাং সরকারকে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনে রাখতে হবে।
এই মুহুর্তে দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতির লাগাম টেনে ধরতে না পারলে সরকারকে তার খেসারত দিতেহবে।
Powered by Blogger.