Header Ads

ইসলামী দলসমূহের অনৈক্যের কারণেই আজ জঙ্গিবাদের অপবাদ সইতে হচ্ছে আমাদের, এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশে এখন অরাজকতা চলছে। দুর্নীতি, সন্ত্রাস , লুটপাট আর ধর্ষণের মহোৎসব চলছে। স্কুলের শ্রেণিকক্ষে স্বামীর সামনে শিক্ষিকাকে ধর্ষণ করা হচ্ছে। এর চেয়ে বর্বরতা আর কী হতে পারে। দেশকে অরাজকতার হাত থেকে রক্ষা করার জন্য ইসলামী শক্তির ঐক্য জরুরি।
সোমবার (২১ আগস্ট) ইসলাম ও বিশ্ব মুসলিম পরিস্থিতি: আমাদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। জাতীয় ওলামা পার্টি ঢাকা মহানগর এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।
এরশাদ বলেন, এই অরাজকতা ও বর্বরতার হাত থেকে দেশ ও দেশের মানুষকে রক্ষা করার জন্য সকল ইসলামী শক্তিকে একটি প্লাটফর্মে আসতে হবে। আমরা যদি ঐক্যবদ্ধ হতে পারি তাহলে দেশে আবারো শান্তি ফিরে আসবে। অরাজকতা দূর হবে। জাতীয় পার্টি হচ্ছে নির্ভরযোগ্য ইসলামী ফ্লাটফর্ম। তাই জাতীয় পার্টির সঙ্গে সকল ইসলামী শক্তিকে হাত মেলানোর আহবান জানান এরশাদ।
মধ্যম আয়ের দেশ হওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে এরশাদ বলেন, যদি মধ্যম আয়ের দেশ হয়, তাহলে সাগর পথে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষ কেন বিদেশ যাচ্ছে? সরকার যখন মধ্যম আয়ের কথা বলেন- মানুষ তখন মুখ টিপে টিপে হাসে। আপনারাতো গ্রাম-গঞ্জে যান না, গ্রামে যান দেখবেন মানুষের কি অবস্থা। মধ্যম আয়ের দেশ হয়ে থাকলে, মানুষ জীবনে ঝুঁকি নিয়ে সাগর পাড়ি দিতো না। তাদের কোন উপায় নেই তাই বাধ্য হয়ে বিদেশ যাচ্ছে।
চালের দাম প্রসঙ্গে খাদ্যমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে এরশাদ বলেন, খাদ্যমন্ত্রী বলেছেন- মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বেড়েছে, তাই চালের দাম বাড়লেও সমস্যা হচ্ছে না। গ্রাম ঘুরে আসেন, ধারণা পাল্টে যাবে। তিনি পঁচা গম আমদানি করেছিলেন, এখনো মন্ত্রী থাকেন কী করে?
পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভার সভাপতিত্ব করেন জাতীয় ওলামা পার্টি ঢাকা মহানগরের সভাপতি এরশাদ উল্লাহ আকমল। আরও বক্তব্য দেন, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জি.এম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভরায়, এস এম ফয়সল চিশতী, ওলামা পার্টির সভাপতি মাওলানা ক্বারী হাবিবুল্লাহ বেলালী ও সাধারণ সম্পাদক এস এম আল জুবায়ের, জাতীয় যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক ফকরুল আহসান শাহজাদা, বাংলাদেশ মসজিদ সমাজের সভাপতি মাওলানা মো. নওয়াব আলী ভূঁইয়া।
Powered by Blogger.