Header Ads

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান অন্যায়ের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন: ফখরুল

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান অন্যায়ের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন: ফখরুল
সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের বিষয়ে আইন কমিশনের চেয়ারম্যান এবিএম খায়রুল হকের বক্তব্যকে ‘অন্যায়ের পক্ষে সাফাই’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতা-মন্ত্রীদের বক্তব্য ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এবিএম খায়রুল হকের বক্তব্যের মধ্যে কোনও অমিল নেই। খাইরুলের বক্তব্যই আওয়ামী লীগের বক্তব্য।’
বৃহস্পতিবার বিকালে নয়া পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ষোড়শ সংশোধনীকে কেন্দ্র করে বিচার বিভাগ, সরকার ও আওয়ামী লীগের নেতাদের বক্তব্য বিষয়ে বিএনপির অবস্থান তুলে ধরেন মির্জা ফখরুল। বিএনপি নেতা বলেন, ‘সাবেক বিচারপতি খাইরুল হকের বক্তব্যকে আমরা ধিক্কার জানাই। তিনি কৃতকর্মের জন্য কোনও অনুশোচনা তো করেননি বরং একটি অন্যায়ের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন।’
সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হকের সমালোচনা করে বিএনপিনেতা মির্জা ফখরুল বলেন, ‘অত্যন্ত পরিতাপের সঙ্গে লক্ষ্য করলাম যে, সরকার বা সরকারি দল আওয়ামী লীগ কোনও আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া দেওয়ার পূর্বেই বর্তমান আইন কমিশন চেয়ারম্যান বিচারপতি খায়রুল হক রায়ের বিরুদ্ধে বিষোদগার করলেন। মনে হলো, এই রায়ের ফলে তার গাত্রদাহ শুরু হয়েছে।’ ‘আইন কমিশনের আসনে বসে সুপ্রিম কোর্টের রায় সম্পর্কে মাননীয় প্রধান বিচারপতি সম্পর্কে তিনি যেসব উক্তি করেছেন তা শুধু অশালীনই নয়, তা রীতিমত আদালত অবমাননার সামিল’, বলেও মন্তব্য করেন ফখরুল।
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, পঞ্চম, সপ্তম ও ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিলের ফলে দেশে যে সাংবিধানিক, রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে তা দেশের গণতন্ত্রকে পুরোপুরি ভঙ্গুর করে ফেলেছে। সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হকের ওইসব রায়ের পরই বাংলাদেশে রাজনৈতিক অস্থিরতা, অস্থিতিশীলতা এবং হতাশা বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকার হয়ে উঠেছে লাগামহীন।
পঞ্চম সংশোধনী বাতিলের বিষয়ে ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘এ রায়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিলের ফলে আওয়ামী লীগ বহুদলীয় গণতন্ত্রের দর্শনের মূল উৎপাটন করে প্রায় একদলীয় একনায়কতান্ত্রিক সরকার চাপিয়ে দিয়েছে। তাই একদলীয় দুঃশাসনে রাষ্ট্র পরিচালিত হচ্ছে।’
বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান সরকারের জনগণের জন্য কোনও ম্যান্ডেড নেই, পার্লামেন্টও নেই। তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আসেনি। এই পার্লামেন্ট বিচারকদের অভিসংশন, অপসারণের দায়িত্ব পেলে শেষ ভরসার জায়গাটুকু হারিয়ে যাবে।’
ফখরুল আরও বলেন, ‘সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ বাতিল করেছেন। হতাশাগ্রস্ত জাতি এই রায়ের মাধ্যমে আশার আলো দেখতে পেয়েছে। আমরা সেজন্যই এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছি এবং আপিল বিভাগকে অভিনন্দন জানিয়েছি।’
ষোড়শী সংশোধনী বাতিলের বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘তারা হতাশ হয়েছেন, সংক্ষুদ্ধ হয়েছেন। তাদের সৃষ্ট দানব যে তাদেরই গ্রাস করতে চলছে তা এখনও তারা বুঝতে পারছেন না। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগকে আরও একবার ধন্যবাদ জানাই এই জন্য যে, তারা তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন।’
এসময় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চোখে গতকাল লন্ডনের হাসপাতালে সাফল্যের সঙ্গে অস্ত্রোপচার হয়েছে, জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল বলেন, ‘তার দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য সারাদেশের মানুষের কাছে দোয়া চাই।’
উৎসঃ   banglatribune
Powered by Blogger.